Thursday - 2 - July - 2020

সারাকে স্কুল থেকে বের করে দিতে চেয়েছিল

Published by: সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক |    Posted: 3 months ago|    Updated: 3 months ago

An Images

সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক :

অক্ষয় কুমার ও ধানুশের সঙ্গে চলছে সারার পরবর্তী ছবি ‘আতরাঙ্গি রে’–র কাজ।

 

২০১৮ সালের শেষের দিকের ঘটনা। সারা আলী খান তখন সবে কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনার পাট চুকিয়েছেন। জিমে গিয়ে ওজন কমিয়ে ফিটফাট হয়ে পা রেখেছেন বলিউডে। তখন থেকেই যেকোনো সাক্ষাৎকারে ঘুরেফিরে একটি প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছে তাঁকে, ‘রাজকীয় পরিবারে বেড়ে উঠতে কেমন লাগে?’ উত্তরে প্রতিবার ২৪ বছর বয়সী সারা বলেছেন, ওসব কিচ্ছু না। একেবারে সাধারণ পরিবারের সন্তানের মতোই বড় হয়েছেন তিনি।

সারা আলী খান। ছবি: ইনস্টাগ্রামইতিমধ্যে ‘কেদারনাথ’, ‘সিম্বা’ ও ‘লাভ আজ কাল’—এই তিনটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। বরুণ ধাওয়ানের সঙ্গে জুটি বেঁধে ১ মে মুক্তির অপেক্ষায় ‘কুলি নম্বর ওয়ান’। অক্ষয় কুমার ও ধানুশের সঙ্গে চলছে ‘আতরাঙ্গি রে’ ছবির কাজ। ফিল্মফেয়ারের এক সাক্ষাৎকারে আবারও তাঁকে শুনতে হলো একই প্রশ্ন, তারকা পরিবারে মা, বাবা কীভাবে শাসন করে? সারা আলী খান উত্তর দিয়েছেন এভাবে, ‘অন্য মা–বাবা যেভাবে শাসন করে। হ্যাঁ, এটা সত্যি যে আমার বাবা (সাইফ আলী খান), মা (অমৃতা সিং) বড় পর্দার তারকা। কিন্তু সেটা দর্শকদের জন্য। তাই আমি তারকা পরিবারের কেউ—এটা অন্যদের জন্য সত্যি হলেও আমার জন্য নয়। আমার জন্য আমার মা–বাবা অন্য আর দশটা সাধারণ মা–বাবার মতোই।’

সারা ও বরুণ ধাওয়ান অভিনীত ‘কুলি নম্বর ওয়ান’ মুক্তি পাবে ১ মে। ছবি: ইনস্টাগ্রামবাবা ও মায়ের বিশেষ বৈশিষ্ট্য বলতে গিয়ে সারা আলী খান বলেন, ‘বাবা সব সময় আমার লেখাপড়ার দিকে কড়া নজর রেখেছেন। আর মা নত হতে শিখিয়েছেন। মানবিকতা শিখিয়েছেন।’ ২৪ বছর বয়সী সারা এই সময় ছোটবেলায় স্কুলে ঘটে যাওয়া এক ঘটনার কথাও উল্লেখ করেন। যেটি দিয়ে তিনি বোঝাতে চেয়েছেন, তাঁর শৈশব আর অন্যদের শৈশবের মধ্যে কোনো ফারাক নেই।

শোনা যাক সারার মুখেই: ‘তখন আমি অনেক ছোট। ঠিক কোন ক্লাসে মনে নেই। একবার দুষ্টুমি করে ক্লাসরুমের ফ্যানের পাখার ওপর তরল আঠা রেখে দিয়েছিলাম। আর যখনই সুইচ অন হলো, সেই আঠা সারা ক্লাস ছড়িয়ে পড়ল। শিক্ষকদের অনুসন্ধানে বেরিয়ে এল, এই কুকর্মের মূল হোতা আমি। সেবার তো আমাকে স্কুল থেকে প্রায় বেরই করে দিয়েছিল। আমাকে বারবার জিজ্ঞেস করেছিল, কেন তুমি এমনটা করলে? আমি কী উত্তর দেব, আমি তো জানি না কেন করলাম। সরিটরি বলে সে দফায় রক্ষা পেয়েছিলাম।’

মিষ্টি খেতে খুবই ভালোবাসেন সারা। ছবি: ইনস্টাগ্রামঅবশ্য সারা আলী খানের এই স্বভাব এখনো যায়নি। আরেকটা ঘটনা শুনবেন? রোহিত শেঠি পরিচালিত ‘সিম্বা’ সিনেমার সেটে সারা আলী খান এক রাতে পরিচালককে ডেকে কান্না কান্না ভাব করে বললেন, ‘আজ আমার জন্মদিন, কেউ মনে রাখেনি।’ পরিচালক সঙ্গে সঙ্গে আয়োজন করলেন। কেক আনালেন। হইহুল্লোড় করে কেক কাটা হলো। পেট ভরে কেক খেয়ে ভোরের দিকে সারা পরিচালককে চুপি চুপি বললেন, ‘আমার জন্মদিন তো সেই কবে চলে গেছে। কেক খেতে ইচ্ছে করছিল। তাই মিথ্যে কথা বলেছি!’ এটুকু বলেই ছুটে পালালেন।

সারা আলী খান এ রকমই।