Thursday - 2 - July - 2020

করোনা মোকাবিলায় সার্ক তহবিল গঠনের প্রস্তাব মোদির

Published by: সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক |    Posted: 3 months ago|    Updated: 3 months ago

An Images

সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক :

করোনা ভাইরাসের (কভিড-১৯) সংক্রমণ মোকাবিলায় যৌথ তহবিল গঠনসহ ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে সম্মত হয়েছেন দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আহ্বানে রোববার বিকেলে আয়োজিত 'সার্ক ভিডিও কনফারেন্সে' এ বিষয়ে একমত হন তারা।

এতে অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সার্কভুক্ত দেশগুলোকে এক হয়ে এই মহামারি মোকাবিলা করতে হবে। করোনাসহ ভবিষ্যতে যে কোনও স্বাস্থ্যঝুঁকি মোকাবিলায় সার্ক দেশগুলোর জন্য একটি ইনস্টিটিউট স্থাপনের প্রস্তাবও দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ভিডিও কনফারেন্সে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভীত না হয়ে এ দুর্যোগ মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকার আহবান জানান। একই সঙ্গে করোনা মোকাবেলায় যৌথ তহবিল গঠনের প্রস্তাব দিয়ে এই তহবিলে ভারতের পক্ষ থেকে এক কোটি মার্কিন ডলার দেওয়ার ঘোষণা দেন।

ভিডিও কনফারেন্সে আরও বক্তব্য দেন- শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোটাবে রাজাপাকসে, আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি,মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ, নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি, ভুটানের প্রধানমন্ত্রী শেরিং তোবগে, এবং পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ডা. জাফর মির্জা।

নরেন্দ্র মোদি তার বক্তব্যের শুরুতে তার আহ্বানে এই কনফারেন্সে যোগ দেওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, স্বাস্থ্যঝুঁকির বিষয়টি যেমন অবমূল্যায়ন করা যাবে না। আবার অযথা আতংকিতও হওয়া যাবে না। এ সংকট মোকাবিলায় সবাইকে প্রস্তুত থাকতে হবে।

তিনি বলেন, বর্তমানে একটি দেশ আর একটি দেশের সঙ্গে যুক্ত। আর করোনা এখন কারও একার সমস্যা নয়, সবার সমস্যা। এ কারণে সমন্বিতভাবে এ সমস্যার মোকাবিলা করতে হবে। কিভাবে ঐক্যবদ্ধভাবে এ সমস্যার মোকাবিলা করা যায় সে জন্য উপায় নির্ধারণ করতে হবে। সবার সামর্থ্য একসঙ্গে হলে এ মহমারির বিরুদ্ধে বড় শক্তি নিয়ে প্রস্তুতি নেওয়া সম্ভব হবে।

নরেন্দ্র মোদি করোনা মোকাবিলায় সার্ক দেশগুলোর যৌথ তহবিল গঠনের ঘোষণা দেন। তিনি বলেন, ভারত এই তহবিলে এক কোটি মার্কিন ডলার দেবে। এই তহবিল সার্কভুক্ত দেশগুলো প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবহার করবে। ভারতের দূতাবাসগুলো এ তহবিল সমন্বয়ের কাজ করতে পারে। ভারতের পররাষ্ট্র সচিব এটির ব্যবস্থাপনার দায়িত্বও পালন করতে পারেন।

নরেন্দ্র মোদি ভারতে করোনা প্রতিরোধে সময়মত ব্যবস্থা নেওয়ার বিবরণ তুলে ধরে বলেন, মহামারি রুখতে ভারত শুরু থেকেই সাবাধান ছিল। এ জন্য চিকিৎসার সক্ষমতা বাড়ানো হয়েছে। সংক্রমণ খুঁজে বের করা, কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা, সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীদের হাসপাতাল থেকে চলে যাওয়ার ক্ষেত্রে পরিপুর্ণ নজরদারি করা হয়েছে। অতএব ভয় পাওয়ার কোনও কারণ নেই। ভয় পাওয়া চলবে না, প্রতিটি ক্ষেত্রে আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সার্কভুক্ত দেশের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এবং কর্মকর্তারা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিয়মিত তাদের কাজের সমন্বয় করতে পারেন। সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে, সমন্বিতভাবে কাজ করলে করোনা মোকাবিলা কোন সমস্যা হবে না।

মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ বলেন, এই ভিডিও কনফারেন্সের মধ্য দিয়ে সার্কভুক্ত দেশগুলোর করোনা দুর্যোগ মোকাবেলায় একে অপরের দৃষ্টিভঙ্গি বিনিময় করা সম্ভব হচ্ছে। এটা খুবই সময়পোযোগী হয়েছে।

বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা জানান।