Tuesday - 7 - July - 2020

করোনা আতঙ্কের জেরে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে ইস্ট-মোহন ডার্বি! অনিশ্চিত আইপিএলও

Published by: সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক |    Posted: 3 months ago|    Updated: 3 months ago

An Images

সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক :

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আতঙ্কের বড়সড় প্রভাব দেশের ক্রীড়াক্ষেত্রে। কলকাতা ডার্বি (Kolkata derby) থেকে শুরু করে আইপিএল পর্যন্ত সমস্ত টুর্নামেন্টেই বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে চলেছে ক্রীড়ামন্ত্রক। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রকের তরফে ক্রীড়ামন্ত্রকের কাছে একটি নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। যাতে বলা হয়েছে, সমস্তরকম খেলাধূলা আপাতত বাতিল করতে হবে। আর যে সমস্ত ক্ষেত্রে খেলা বাতিল করা সম্ভব নয়, সেসব ক্ষেত্রে সবরকমের জমায়েত উপেক্ষা করতে হবে। স্টেডিয়ামে দর্শকদের প্রবেশের অনুমতিও দেওয়া হবে না।

 

IPL

এই নির্দেশিকা হাতে পাওয়ামাত্রই ক্রীড়া মন্ত্রকের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী কিরেণ রিজিজু (Kiren Rijiju) জানিয়ে দিয়েছেন, করোনার জন্য ভারতে সমস্তরকম আন্তর্জাতিক ক্রীড়া টুর্নামেন্ট বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ঘরোয়া টুর্নামেন্টের ক্ষেত্রেও জারি করা হচ্ছে বিধিনিষেধ। ঘরোয়া টুর্নামেন্টের আয়োজন হতে পারে। তবে, সেক্ষেত্রে তা করতে হবে ফাঁকা স্টেডিয়ামে। এই নির্দেশিকার প্রভাব পড়বে আইপিএল, ভারত বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা ওয়ানডে সিরিজ, আইএসএল (Indian Super League) ফাইনাল এবং আই লিগের বাকি ম্যাচগুলিতেও।

 

 

যা খবর, তাতে আই লিগের সমস্ত ম্যাচ এখন থেকে দর্শকশূন্যভাবে আয়োজন করা হবে। সেক্ষেত্রে কলকাতা ডার্বিও আয়োজন করতে হবে শূন্য গ্যালারিতে। নির্দেশিকা হাতে পাওয়ার পর সেইমতো প্রস্তুতিও শুরু করেছেন আয়োজকরা। এতে কলকাতার ফুটবল সমর্থকরা হতাশ হবেন, কোনও সন্দেহ নেই। শুধু তাই নয়, আইএসএল ফাইনালও আয়োজিত হতে পারে দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে। দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম ভারত সিরিজের শেষ দুটি ম্যাচও হতে পারে বন্ধ স্টেডিয়ামে। এছাড়াও বড়সড় প্রশ্ন উঠে যাচ্ছে আইপিএলের ভবিষ্যৎ নিয়েও। কারণ ইতিমধ্যেই বিদেশ মন্ত্রকের তরফে বোর্ডকে আইপিএল বন্ধ রাখতে অনুরোধ করা হয়েছে। আগামী ১৪ মার্চ আইপিএল গভর্নিং কমিটির বৈঠকেই নেওয়া হবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত। বিসিসিআই অবশ্য কোনওভাবেই আইপিএল (Indian Premier League) বন্ধ করতে চাইছে না। বোর্ড চাইছে, প্রয়োজনে শূন্য স্টেডিয়ামেই আয়োজন করা হবে আইপিএলের। খুব বেশি হলে দিন পনেরো পিছিয়ে দেওয়া যেতে পারে আইপিএল। তবে, তা বন্ধ করার প্রশ্ন নেই।